| ঢাকা, রবিবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১ আশ্বিন ১৪২৭

টেস্ট ইতিহাসে টাইগারদের সেরা ৫টি জয়

২০২০ সেপ্টেম্বর ১০ ২১:১৭:৫৩
টেস্ট ইতিহাসে টাইগারদের সেরা ৫টি জয়

বর্তমানে সল্প ওভারের ক্রিকেটে বাংলাদেশ দলের খেলা গুলো দর্শকদের নজর কাড়ার মত। কিন্তু ক্রিকেটের রাজকীয় ফরম্যাট টেস্ট ক্রিকেটটা এলেই যেন খেই হারিয়ে ফেলে বাংলাদেশ। ২০ বছর আগে ২০০০ সালে ভারতের বিপক্ষে টেস্ট অভিষেক হয় বাংলাদেশে।

করোনাভাইরাসে ক্রিকেট বন্ধ হওয়ার আগ পর্যন্ত গত দুই দশকে ১১৯টি টেস্ট খেলেছে বাংলাদেশ। অন্যান্য দেশগুলোর তুলনায় যে সংখ্যা খুবই নগণ্য। আর এই ক’টি টেস্টে জয় সর্বসাকল্যে মাত্র ১৪টি। বাকি সব পরাজয় আর ড্র। আর সেই পরাজয়ের অধিকাংশই ইনিংস ব্যবধানে।

তবে এতসব পরাজয়ের মিছিলে ঐ ১৪ টি জয়ের মধ্যে ২টি ইনিংস ব্যবধানে, ৩টি উইকেটে এবং বাকি ৯টি রানের ব্যবধানে। ইনিংস ব্যবধানে জয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে এবং উইকেটে হারিয়েছে জিম্বাবুয়ে, শ্রীলঙ্কা ও ওয়েস্ট ইন্ডিজকে। টাইগারদের সবচেয়ে বেশি ২০টি টেস্টের প্রতিপক্ষ ‘দ্বীপরাষ্ট্র’ শ্রীলঙ্কা। সবচেয়ে বেশি জয়ের প্রতিপক্ষ জিম্বাবুয়ে। জয় পায়নি ভারত, পাকিস্তান, দক্ষিণ আফ্রিকা, আফগানিস্তান ও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে।

টাইগারদের টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে সেরা পাঁচ জয় নিয়েই আজকের প্রতিবেদন-

প্রথম টেস্ট জয় বাংলাদেশের টেস্ট অভিষেক ২০০০ সালে ভারতের বিপক্ষে। প্রথম জয়ের প্রতিপক্ষ জিম্বাবুয়ে। ২০০৫ সালে চট্টগ্রাম এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ২২৬ রানের জয় বাংলাদেশের টেস্ট ক্রিকেটের প্রথম জয়। ম্যাচের উভয় ইনিংসে দারুণ ব্যাটিং করেন অধিনায়ক হাবিবুল বাশার। প্রথম ইনিংসে ৯৪ এবং দ্বিতীয় ইনিংসে ৫৫ রান করেন তিনি। কিন্তু দ্বিতীয় ইনিংসে জিম্বাবুয়েকে ১৫৪ রানে গুটিয়ে ইতিহাসখ্যাত জয় উপহার দিয়ে বাংলাদেশকে লাল-সবুজে পতাকায় ছেয়ে ম্যাচসেরা হন এনামুল হক জুনিয়র।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

বাংলাদেশ

প্রথম ইনিংস- ৪৮৮/১০ (বাশার ৯৪)

দ্বিতীয় ইনিংস- ২০৪/৯ (বাশার ৫৫)।

প্রথম ইনিংস- জিম্বাবুয়ে: ৩১২/১০ (রফিক ৫/৬৫)

দ্বিতীয় ইনিংস- ১৫৪/১০ (এনামুল জুনিয়র ৬/৪৫)।

ফলাফল: বাংলাদেশ ২২৬ রানে জয়ী।

দেশের বাইরে সাফল্য

টেস্ট অভিষেকের পাঁচ বছর প্রথম জয় পায় বাংলাদেশ। দেশের বাইরে টাইগারদের প্রথম জয় ২০০৯ সালে। কিংসটাউনে স্বাগতিক ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ৯৫ রানের ঐতিহাসিক জয়ের ম্যাচে অধিনায়ক ছিলেন মাশরাফি বিন মর্তুজা। ওটাই ছিল তার শেষ টেস্ট অধিনায়কত্ব। ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে জয় পেতে টাইগারদের পক্ষে চোখ ধাঁধানো ব্যাটিং করেন তামিম ইকবাল এবং বোলিং করেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। মাহমুদুল্লাহ অভিষেক টেস্টকে রাঙান দুই ইনিংসে ৮ উইকেট নিয়ে। কিন্তু ম্যাচসেরা হন তামিম ইকবাল, দ্বিতীয় ইনিংসে ১২৮ রানের ইনিংস খেলেন তিনি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

বাংলাদেশ

প্রথম ইনিংস- ২৩৮/১০ (মাশরাফি ৩৯)

দ্বিতীয় ইনিংস- ৩৪৫/১০ (তামিম ১২৮)।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ

প্রথম ইনিংস- ৩০৭/১০ (মাহমুদুল্লাহ ৩/৫৯)

দ্বিতীয় ইনিংস- ১৮১/১০ (মাহমুদুল্লাহ ৫/৫১)।

ফলাফল: বাংলাদেশ ৯৫ রানে জয়ী।

ইংলিশ বধ

ক্রিকেট পরাশক্তি দেশগুলোর বিপক্ষে বাংলাদেশের প্রথম জয় ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ২০১৬ সালে। মিরপুরে ঐতিহাসিক জয়ের নায়ক অফ স্পিনার মেহেদী হাসান মিরাজ। তার স্পিন ভেল্কিতে ১০৮ রানে হারায় ইংল্যান্ডকে। তবে টাইগারদের লড়াইয়ে টিকিয়ে রেখেছিলেন তামিম ইকবাল প্রথম ইনিংসে অবিশ্বাস্য ১০৪ রানের ইনিংস খেলে। ইমরুল কায়েশও ভালো ব্যাটিং করেন। কিন্তু ম্যাচের নায়ক মেহেদী হাসান মিরাজ। দুই ইনিংসে ৬টি করে ১২টি উইকেট নেন। তার ঘূর্ণিতে বেসামাল হয়ে পড়ে ইংলিশ ব্যাটসম্যানরা।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

বাংলাদেশ

প্রথম ইনিংস- ২২০/১০ (তামিম ১০৪)

দ্বিতীয় ইনিংস- ২৯৬ (ইমরুল ৭৮)

ইংল্যান্ড

প্রথম ইনিংস- ২৪৪/১০ (মিরাজ ৬/৮২)

দ্বিতীয় ইনিংস- ১৬৪/১০( মিরাজ ৬/৭৭)।

ফলাফল: বাংলাদেশ ১০৮ রানে জয়ী।

শততম টেস্টে জয়

২০০০ সালে টেস্ট আঙ্গিনায় যাত্রা শুরু বাংলাদেশের। প্রথম টেস্ট জয় পাঁচ বছর পর জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে। গত ২০ বছরে ১১৯টি টেস্ট খেলেছে বাংলাদেশ। নিজেদের ক্রিকেট ইতিহাসের শততম টেস্টে বাংলাদেশ তুলে নেয় অবিস্মরণীয় এক জয়। কলম্বোয় স্বাগতিক শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৪ উইকেটের অবিশ্বাস্য জয় পেতে টাইগারদের সামনে থেকে নেতৃত্ব দেন সাকিব আল হাসান দুরন্ত অলরাউন্ডিং পারফরম্যান্সে। তবে জয় তুলে নিতে ৮২ রানের অবিশ্বাস্য ইনিংস খেলে ম্যাচসেরার পুরস্কার জিতে নেন তামিম ইকবাল।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

শ্রীলঙ্কা

প্রথম ইনিংস- ৩৩৮/১০ (মিরাজ ৩/৯০)

দ্বিতীয় ইনিংস- ৩১৯/১০ (সাকিব ৪/৭৪)।

বাংলাদেশ

প্রথম ইনিংস- ৪৬৭/১০ (সাকিব ১১৬)

দ্বিতীয় ইনিংস- ১৯১/৬ (তামিম ৮২)।

ফলাফল: বাংলাদেশ ৪ উইকেটে জয়ী।

অস্ট্রেলিয়া বধ

নিরাপত্তার অজুহাতে বাংলাদেশ সফর প্রথমবার বাতিল করে অস্ট্রেলিয়া। এরপর ‘ভিভিআইপি’ নিরাপত্তায় ২০১৭ সালের আগস্টে খেলতে আসে। আর সেই সফরেই অস্ট্রেলিয়াকে সাদা পোশাকে হারায় টাইগাররা। মিরপুরে ক্রিকেট পরাশক্তি অস্ট্রেলিয়াকে ২০ রানে হারানোর নায়ক সাকিব আল হাসান। ব্যাট ও বল হাতে একাই ধসিয়ে দেন অসিদের। ব্যাট ও বল হাতে একাই ধসিয়ে দেন অসিদের। ব্যাট হাতে উজ্জ্বল সাকিব বল হাতে ছিলেন দুর্বোধ্য। দুই ইনিংসে ৫টি করে মোট ১০ উইকেট নেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। তবে ব্যাট হাতে অন্যসব বড় জয়গুলোর মতো অসি বধেও দারুণ ব্যাটিং করেছিলেন তামিম ইকবাল।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

বাংলাদেশ

প্রথম ইনিংস- ২৬০/১০ (সাকিব ৮৪)

দ্বিতীয় ইনিংস- ২২১/১০ (তামিম ৭৮)

অস্ট্রেলিয়া

প্রথম ইনিংস- ২১৭/১০ (সাকিব ৫/৬৮)

দ্বিতীয় ইনিংস- ২৪৪/১০( সাকিব ৫/৮৫)।

ফলাফল: বাংলাদেশ ২০ রানে জয়ী।

পাঠকের মতামত:

ক্রিকেট এর সর্বশেষ খবর

ক্রিকেট - এর সব খবর



রে