| ঢাকা, রবিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩১ ভাদ্র ১৪২৬

সব ঠিক আছে বললেন পাপন

২০১৯ সেপ্টেম্বর ১১ ১৮:৩৮:১৬
সব ঠিক আছে বললেন পাপন

সাদা পোষাকে সদ্য ভূমিষ্ট অফগানদের কাছে প্রায় ২০ বছরের অভিজ্ঞ বাংলাদেশ হেরে গেল! অথচ বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন বললেন-ক্রিকেটে তো এমন হতেই পারে! স্বাগতিক হয়েও ঘরের মাঠের সুবিধা সাকিবরা এতটুকুও নিতে পারলেন না, বিসিবি সভাপাতি বললেন-ব্যাপার না! বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার হয়েও পুঁচকে আফগানদের বিপক্ষে ব্যাটে-বলে নিস্প্রভ ছিলেন সাকিব আল হাসান, পাপন বললেন-ও আমাদের সেরা ক্রিকেটার। বিশ্বকাপে ওইতো দেশের হয়ে খেলেছে। এক ম্যাচে এমনটা হতেই পারে। অভিজ্ঞ মুশফিকুর রহিম ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দৈন্য ব্যাটিংও দলকে পথভ্রষ্ট করল, কিন্তু পাপন বললেন-মুশফিক আমাদের সেরা ব্যাটসম্যান আর মাহমুদউল্লাহ অসাধারণ ব্যাটসম্যান।

তার কথার মর্মার্থ হল, জহুর আহেমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে সদ্য সমাপ্ত টেস্ট ম্যাচটিতে যা হয়েছে তাতে কোন সমস্যা নেই। ২২৪ রানের বিব্রতকর হারের পরেও বললেন, দল সঠিক পথেই আছে!

বুধবার (১১ সেপ্টেম্বর) বিসিবি কার্যালয়ে সংবাঁদ সম্মেলন ডেকেছিলেন সেখানেই তিনি একথাগুলো বলেন।

‘আমি মনে প্রাণে বিশ্বাস করি এটি আমাদের আসল চিত্র না। আমাদের দলে এখন তামিম নেই, কিন্তু দেখেন, সাকিব, মুশফিক, রিয়াদের মতো খেলোয়াড় আছে। এই মুশফিক বাংলাদেশের সেরা ব্যাটসম্যান। আমার দেখা বাংলাদেশের আজ পর্যন্ত ক্রিকেট দেখি তাহলে আমার হিসেবে সে সেরা ব্যাটসম্যান। তামিম সেরা ওপেনার বাংলাদেশের। সাকিব বিশ্বের অন্যতম সেরা খেলোয়াড়। এই বিশ্বকাপে ও ছিল সেরা খেলোয়াড় বলে আমি মনে করি। রিয়াদ একজন অসাধারণ খেলোয়াড়। বহু ম্যাচ সে আমাদের জিতিয়েছে। এরা কেউ শেষ হয়ে যায়নি। অফ ফর্ম তো থাকতেই পারে।‘

শঙ্কটের শুরুটা হয়েছে গেল মাসের শ্রীলঙ্কা সিরিজ থেকে। লঙ্কাভিযানে গিয়ে স্বাগতিকেদর কাছে তিন ম্যাচ সিরিজের ওয়ানডেতে হোয়াইট ওয়াশ হয়ে দেশে ফিরল বাংলাদেশ। বিশ্বকাপের সেই দৈন্য পারফরম্যান্স লেগেছিল ওপেনার তামিম ইকবাল সহ সবার ব্যাটেই। বোলিংয়েও ছিল তথৈবচ অবস্থা। প্রশ্নটা তখনই উঠল, তাহলে বাংলাদেশের পাইপ লাইন কতটা সমৃদ্ধ? নাকি পাইপ লাইন নামক কিছুই নেই? যদি থেকেও থাকে তাহলে তাদের সুযোগ দেওয়া হবে কবে?

না, বাংলাদেশ ক্রিকেটের পাইপলাইন অসমৃদ্ধ বা কেউই নেই বিষয়টি এমন নয়। মূল ব্যাপার হলো, নতুনদের নিয়ে এই মুহূর্তে ভাবতেই চাইছে না বিসিবি।

‘এদেরকে এখন বাদ দিয়ে নতুন খেলোয়াড় আনতে হবে এমন কোনো চিন্তাই আমার মাথায় আসেনা। হয়তো অনেকেই ভাবছেন যে তারা শেষ হয়ে গেছে। কিন্তু না, আমি এখনও মনে প্রাণে বিশ্বাস করি যে তামিম, সাকিব, মুশফিক, রিয়াদ এরা যেকোনো দলের বিরুদ্ধে, যেকোনো বোলারের বিরুদ্ধে সেঞ্চুরি করতে পারে। আমার এবার ধারণা ছিল যে মুশফিক এই টেস্টেই সেঞ্চুরি করবে। তবে হয়নি, এমনটা হতেই পারে। আরেকটি ব্যাপার বলে রাখি। এদের সঙ্গে সৌম্য, লিটন, সাব্বিরদের মতো খেলোয়াড়দের......মুস্তাফিজের কথা তো না বললে পারি না। তারা অসাধারণ খেলোয়াড়। টি-টোয়েন্টিতে যেকোনো দলের সঙ্গে, যেকোনো বোলারকে ওরা তুলোধুনো করতে পারে।‘

‘আমাদের মূল শক্তি এবং ম্যাচ উইনার এখনও ধরবো তামিম, সাকিব, মুশফিক, রিয়াদকে। মাশরাফি- যাকে নিয়ে মিডিয়াতে অনেক, আসলে মিডিয়া না, ফেসবুকে কিংবা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেক কথাবার্তা হয়েছে। আরে এই মাশরাফিই আমাদের কম ম্যাচ জেতায়নি। ত্রিদেশীয় সিরিজ জিতিয়ে নিয়ে এসেছে, অসাধারণ খেলেছে মাশরাফি। একটি বিশ্বকাপে একটু খারাপ খেলেছে, মনে হয় যেন কি না কি হয়ে গেল। এত তাড়াতাড়ি আমাদের কাউকে ওঠানো উচিত না, কাউকে ফেলেও দেওয়া উচিত না। আমি মনেপ্রাণে বিশ্বাস করি বাংলাদেশ দল এখনও যেকোনো দলকে, আমাদের এই দল যেকোনো দলকে এখনও যেকোনো সময় হারাতে পারে এবং আমার এই বিশ্বাসটি রয়েছে। আমরা যখন ইংল্যান্ডকে টেস্টে হারিয়েছি, অস্ট্রেলিয়াকে টেস্টে হারিয়েছি আপনারা জানেন যে ওই সময়ে আমরা ছিলাম টেস্টের তলানিতে। এরপর ওপর সারির দলগুলো যখন আমাদের কাছে হেরে গেছে ওরা শেষ হয়ে যায়নি।‘ যোগ করেন পাপন।

পাঠকের মতামত:

ক্রিকেট এর সর্বশেষ খবর

ক্রিকেট - এর সব খবর



রে