| ঢাকা, শনিবার, ২৮ মে ২০২২, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

প্লে অফে যেতে হলো কঠিন সমীকরণ মেলাতে হবে দিল্লি, কলকাতা ও আরসিবিকে, দেখেনিন হিসাব নিকাশ

২০২২ মে ১৪ ১২:৪৩:২৫
প্লে অফে যেতে হলো কঠিন সমীকরণ মেলাতে হবে দিল্লি, কলকাতা ও আরসিবিকে, দেখেনিন হিসাব নিকাশ

গুজরাট টাইটান্স ইতিনধ্যে পৌঁছে গিয়েছে আইপিএল-এর প্লে অফে। এদিকে টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে বাড়ির টিকিট কাটা হয়ে গিয়েছে মুম্বই ও চেন্নাইয়ের। এই আবহে বাকি সব দলেরই অল্প বিস্তর সুযোগ রয়েছে আইপিএল প্লে অফে জায়গা করে নেওয়ার। এই আবহে আরসিবির হার প্লেঅফের সমীকরণ পালটে দিয়েছে অনেক দলের জন্যই।

গত ম্যাচে হারলেও গুজরাটের পর আইপিএল প্লে অফে যাওয়ার প্রবল সম্ভাবনা রয়েছে কেএল রাহুলদেল। লখনউ সুপারজায়ান্টসের প্লে অফের সম্ভাবনা ৯৭.৬ শতাংশ। আপাতত ১২ ম্যাচে ১৬ পয়েন্ট আছে লখনউয়ের ঝুলিতে। লখনউ বাকি দুটি ম্যাচের (১৫ মে রাজস্থান রয়্যালস এবং ১৮ মে কলকাতা নাইট রাইডার্সের বিরুদ্ধে) মধ্যে একটিতে হেরে গেলেও প্লে-অফে উঠে যাবে।

রাজস্থান রয়্যালসের প্লে অফে যাওয়ার সম্ভাবনা ৯২.২ শতাং। সঞ্জু স্যামসনরা আপাতত ১২ ম্যাচে ১৪ পয়েন্ট আছে। নেট রানরেট +০.২২৮। সেই পরিস্থিতিতে বড় ব্যবধানে ব্যাঙ্গালোর হেরে যাওয়ায় লাভ হল রাজস্থানের। সঞ্জুরা যদি নিজেদের একটি ম্যাচে হারে, তাহলেও প্লে-অফে ওঠার লড়াইয়ে প্রবলভাবে থাকবে (সেক্ষেত্রে ব্যাঙ্গালোর ও রাজস্থান সর্বোচ্চ ১৬ পয়েন্টে শেষ করতে থাকবে)।

গতকাল পঞ্জাবের কাছে হেরে নিজেদের প্লে অফ সম্ভাবনায় জোর ধাক্কা দিয়েছেন ফ্যাফ-কোহলিরা। আরসিবির প্লে অফে যাওয়ার সম্ভাবনা ৭৭ শতাংশ। প্রথম দুইয়ে থাকার আশা কার্যত শেষ হয়ে গিয়েছে আরসিবির। আপাতত ১৩ ম্যাচে পয়েন্ট ১৪ আছে। এমনকী নেট রানরেট এতটাই খারাপ যে শেষ ম্যাচে গুজরাট টাইটানসের বিরুদ্ধে জিতলেও ছিটকে যেতে পারেন বিরাট কোহলিরা। কারণ ১৬ পয়েন্ট বা তার বেশি পয়েন্টে থাকতে পারে পাঁচটি দল।

দিল্লির প্লে অফে যাওয়ার সম্ভাবনা ৪৮.৬শতাংশ। বর্তমানে দিল্লি ১২ ম্যাচে ১২ পয়েন্টে দাঁড়িয়ে। এই আবহে নিজেদের বাকি দুটি ম্যাচ থেকে সর্বোচ্চ ১৬ পয়েন্টে পৌঁছতে পারবেন ঋণভ পন্তরা। এই আবহে দিল্লির প্লে অফে যাওয়ার রাস্তা খোলা থাকলেও তা কিছুটা কঠিন।

শুক্রবারের জয়ের ফলে প্লে-অফের লড়াইয়ে প্রবলভাবে ফিরে এল পঞ্জাব। এখন তাদের প্লে অফে যাওয়ার সম্ভাবনা ৪৬.৫ শতাংশ। ১২ ম্যাচে পয়েন্ট ১২। বাকি দুটি ম্যাচ জিতলে ১৬ পয়েন্টে পৌঁছে যাবেন মায়াঙ্ক আগরওয়ালরা। পরের দুটি ম্যাচে পঞ্জাবের প্রতিপক্ষ হল - দিল্লি ক্যাপিটালস এবং সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। যে দু'দলই প্লে-অফের লড়াইয়ে আছে। পঞ্জাব দুটি ম্য়াচ জিতলেই ওই দুটি দল প্লে-অফের দৌড় থেকে (কার্যত) ছিটকে যাবে।

সানরাইজার্স হায়দরাবাদের প্লে অফে যাওয়ার সম্ভাবনা ২৮.১ শতাংশ। ব্যাঙ্গালোরের হারে তাদের প্লে অফ যাত্রার পথ কিছু প্রশস্ত হয়েছে। আপাতত ১১ ম্যাচ খেলে ১০ পয়েন্টে আছে কেন উইলিয়ামসনদের। তাঁরা আশা করবেন, লিগের শেষ ম্যাচে ‘টপার’ গুজরাটের বিরুদ্ধে হেরে গেলে ১৪ পয়েন্টেই থমকে থাকবে ব্যাঙ্গালোর। আর বাকি তিন ম্যাচ জিতে ১৬ পয়েন্টে পৌঁছাতে পারলে প্লে-অফের লড়াইয়ে সুবিধা হবে সানরাইজার্সের। ব্যাঙ্গালোর গুজরাটের বিরুদ্ধে জিতলেও কিছুটা লড়াইয়ে থাকবেন কেনরা।

এখনও অঙ্কের নিরিখে টুর্নামেন্টে টিকে আছে কেকেআর। শ্রেয়সদের প্লে অফে যাওয়ার সম্ভাবনা ৯.৪ শতাংশ। কেকেআর ১৪ পয়েন্ট (বাকি দুটি ম্যাচ জিতলে সেই পয়েন্টে পৌঁছাবে) থেকে নেট রানরেটের খেলার প্লে-অফে ওঠার সুযোগ পেতে পারে। তবে এর জন্য ব্যাঙ্গালোর ছাড়া আরও দলের দিকে তাকিয়ে থাকতে হবে শ্রেয়সদের।

পাঠকের মতামত:

ক্রিকেট এর সর্বশেষ খবর

ক্রিকেট - এর সব খবর



রে