| ঢাকা, শুক্রবার, ১৯ আগস্ট ২০২২, ৩ ভাদ্র ১৪২৯

কোহলির কাছে বেশি কিছু নয়, একটিই চওয়া দ্রাবিড়ের

২০২২ জুন ৩০ ১২:১৪:১৯
কোহলির কাছে বেশি কিছু নয়, একটিই চওয়া দ্রাবিড়ের

ইডেনেই সেঞ্চুরির শেষ দেখা পেয়েছিলেন কোহলি। বাংলাদেশের বিপক্ষে গোলাপি বলের টেস্টে। এটি অবশ্যই নভেম্বর ২০১৯ এর কথা। প্রায় আড়াই বছরের ব্যবধানে কোহলির ক্রিকেট ক্যারিয়ারে বড় ধরনের পরিবর্তন এসেছে।

একটা সময় যেন সেঞ্চুরি করাটা অভ্যাসে পরিনত করে ফেলেছিলেন বিরাট কোহলি। কিন্তু সেটা শুধুই অতীতে। গত আড়াই বছরে তিনি সেঞ্চুরি থেকে পুরোপুরি বঞ্চিত। তবে এই মুহূর্তে ব্যাট হাতে রান করতে পারেন না এমনটাও কিন্তু নয়। এই সময়ে অর্ধশতকের স্কোর রয়েছে তার। তবে, তিনি এটিকে সেঞ্চুরিতে রূপান্তর করতে অক্ষম। যে কারণে তার ভক্তরা হতাশ। তবে রাহুল দ্রাবিড় মনে করেন, শতবর্ষে গোল করার চেয়ে দলের জয়ে অবদান রাখতে পারাটা বেশি গুরুত্বপূর্ণ।

ইডেনে বয়সের শেষ দিকে দেখা হয়েছিল কোহলির। বাংলাদেশের বিপক্ষে গোলাপি বলের টেস্ট। এটি অবশ্যই নভেম্বর ২০১৯ এর কথা। কারণ সময়টা ৩২ মাস! প্রায় আড়াই বছর ধরে কোহলির ক্রিকেট ক্যারিয়ারে বড় ধরনের পরিবর্তন এসেছে।

এই সময়ে তিন সংস্করণের ক্রিকেট থেকেই নেতৃত্ব ছেড়েছেন তিনি, শুধু তিন অঙ্কের ম্যাজিক ফিগারটাই ছুয়ে দেখা হয়নি। দ্রাবিড় মনে করেন, সেঞ্চুরি করাটাই একমাত্র সাফল্যের মানদন্ড না, দলের প্রয়োজনে ৬০-৭০ রান করতে পারাটাও যথেষ্ট। যা কোহলির কাছ থেকে পাচ্ছে ভারত।

দ্রাবিড় বলেন, 'অবশ্যই, সে যে মান নির্ধারণ করেছে, মানুষ কেবল তার সেঞ্চুরিকেই সাফল্য হিসাবে দেখে। তবে কোচের দৃষ্টিকোণ থেকে আমরা তার কাছ থেকে অবদান চাই। ম্যাচ জয়ের অবদান, তা ৫০ বা ৬০ হোক।'

কয়েক মাস আগেই সাউথ আফ্রিকার বিপক্ষে তাদের ঘরের মাটিতে টেস্ট সিরিজ খেলেছে ভারত। যেখানে প্রোটিয়া পেসারদের গতি আর বাউন্সের সামনে রান করতে বেশ বেগ পেতে হয়েছে ভারতীয় ব্যাটারদের। সেই সফরে কোহলির ৭৯ রানের একটি ইনিংস আছে, দ্রাবিড়ের চোখে এটি সেঞ্চুরির চেয়ে কোনো অংশে কম নয়।

ভারতের প্রধান কোচ বলেন, 'সবসময় সেঞ্চুরির দিকে নজর দিতে হবে এমনটা কিন্তু না, কেপ টাউনে (সাউথ আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচে) কঠিন পরিস্থিতিতে ৭০ এর বেশি (৭৯) রানের ইনিংসটি একটি ভালো ইনিংস ছিল। তিন অঙ্কে পৌঁছানো হয়নি, তবে এটি একটি ভাল স্কোর ছিল।'

পাঠকের মতামত:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ক্রিকেট এর সর্বশেষ খবর

ক্রিকেট - এর সব খবর



রে