এজবাস্টনে দ্বাদশ বিশ্বকাপের দ্বিতীয় সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডকে অল্প রানের লক্ষ্য ছুঁড়ে দিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। ব্যাটিং বিপর্যয় প্রতিরোধে অ্যালেক্স ক্যারি ও স্টিভ স্মিথ মাথা তুলে দাঁড়ালেও ফের ম্যাচে ফিরে নিয়ন্ত্রণ নিজেদের হাতে রেখেছে স্বাগতিক দল। বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) টস জিতে ব্যাট করতে নেমেই খেই হারায় বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। দলীয় ৪ রানে অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ (০), ১০ রানে আরেক ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার (৯) ও ১৪ রানে একাদশে সুযোগ পাওয়া পিটার হ্যান্ডসকম্ব (৪) সাজঘরে ফিরলে চাপে পড়ে যায় অস্ট্রেলিয়া।

সেই চাপ সামলাতে দারুণ চেষ্টা চালিয়ে গেছেন স্মিথ ও উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান ক্যারি। মাথায় আঘাত নিয়েও ক্যারি দেখেশুনে খেলে যান। যদিও অর্ধ-শতক না পাওয়ার আক্ষেপ নিয়ে সাজঘরে ফিরতে হয় তাকে। তার আগে চতুর্থ উইকেটে স্মিথ-ক্যারি গড়েন ১০৩ রানের পার্টনারশিপ।

৭০ বলে চারটি চার হাঁকিয়ে ৪৬ রান করে সাজঘরে ফেরেন ক্যারি। এর পরপরই বিদায় নেন মার্কাস স্টয়নিস, ব্যক্তিগত শূন্য রানে। ২৩ বলে ২২ রান করা গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ইনিংসকে বড় করতে পারেননি। তবে একপ্রান্ত আগলে রেখেছিলেন স্টিভ স্মিথ। তবে স্মিথও দলীয় ইনিংস শেষ হওয়ার আগে বিদায় নেন। তার আগে ১১৯ বলের মোকাবেলায় ছয়টি চারের সহায়তায় করেন ৮৫ রান। তিনি আউট হলে ভাঙে তার সাথে মিচেল স্টার্কের ৫১ রানের জুটি।

শেষদিকে স্টার্কের ২৯ রানের ইনিংস দলকে সম্মানজনক সংগ্রহ এনে দেয়। ১ ওভার বাকি থাকতেই অজিদের ইনিংস গুটিয়ে যায় ২২৩ রানে। ইংল্যান্ডের পক্ষে আদিল রশিদ ও ক্রিস ওকস তিনটি করে এবং জফরা আর্চার দুটি উইকেট শিকার করেন। একটি উইকেট শিকার করেন মার্ক উড।

সংক্ষিপ্ত স্কোর টস: অস্ট্রেলিয়া অস্ট্রেলিয়া ২২৩ (৪৯ ওভার) স্মিথ, ক্যারি ৪৬, স্টার্ক ২৯, ম্যাক্সওয়েল ২২ ওকস ২০/৩, আদিল ৫৪/৩, আর্চার ৩২/২ জয়ের জন্য ইংল্যান্ডের প্রয়োজন ২২৪ রান।