| ঢাকা, শনিবার, ১৯ জুন ২০২১, ৫ আষাঢ় ১৪২৮

ডমিঙ্গোকে বাদ দেয়া না দেয়া নিয়ে চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানালো বিসিবি

২০২১ মে ১২ ১৯:১৮:১৪
ডমিঙ্গোকে বাদ দেয়া না দেয়া নিয়ে চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানালো বিসিবি

বাংলাদেশ জাতীয় দলের প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো। কয়েকদিন আগে তাকে নিয়ে গুঞ্জন উঠেছিল যে চাকরি হারাচ্ছেন তিনি। যার একমাত্র কারন ছিলো বাংলাদেশ দলের সাম্প্রতিক ব্যর্থতা।

তবে সেই গুঞ্জন উড়িয়ে দিয়েছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পরিচালক আকরাম খান। ডমিঙ্গোকে আরেকটু পরখ করতে চায় বোর্ড, জানিয়েছেন তিনি।

২০১৯ সালে হাই পারফরম্যান্স ইউনিটের কোচ হতে বাংলাদেশে আসেন ডমিঙ্গো। তার পরিকল্পনায় বোর্ড যারপরনাই খুশি হলে দক্ষিণ আফ্রিকা এই কোচকে বসানো হয় জাতীয় দলের প্রধান কোচের আসনে, যে পদে নিয়োগ তখন বেশ জরুরী ছিল।

তবে যে প্রত্যাশা নিয়ে ডমিঙ্গোকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল, তা স্পষ্টতই পূরণ হয়নি। এমনকি দলীয় নানা সিদ্ধান্তের ক্ষেত্রে অব্যবস্থাপনাও চোখে পড়েছে, যা নিয়ে অসন্তোষ জানিয়েছিলেন খোদ বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। তবে এতকিছুর পরও চাকরি হারাতে হচ্ছে না ডমিঙ্গোকে। তাকে আগামী দিনগুলোতেও যাচাই করতে চায় বিসিবি।

বোর্ডের ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খানের দাবি, ডমিঙ্গোর চাকরি হারানোর সম্ভাবনার খবর কেবলই গুঞ্জন। তিনি বলেন, ‘এসব কথা মিডিয়ায়ই বেশি হয়। কোচ আসার পর কালও কথা হয়েছে, মাননীয় বোর্ড সভাপতির সাথেও কথা বলেছি। এ ধরনের কোনো কিছু না। আমরা তো আগেও বলেছি, চারটা সিরিজের পর মূল্যায়ন করব। এটা আপনাকে দেখতে হবে।’

আকরামের মতে, ডমিঙ্গোর হাতে পূর্ণ শক্তির বাংলাদেশ দল তুলে দেওয়া যায়নি। এটাকে বোর্ডের ব্যর্থতা হিসেবেই দেখতে চান তিনি।

আকরামের ভাষায়, ‘এটাও মানতে হবে কেন আমরা খারাপ খেলেছি, কোচের জন্য খারাপ খেলেছি তাও তো না। প্রত্যেকটা জিনিস মূল্যায়ন করতে হবে। আমাদের পূর্ণ শক্তির দলও তো ওকে দিতে পারিনি। অনেক সময় দল ঠিকঠাক হয়নি, যেমন উইকেট চেয়েছি ওরকম পাইনি- ভুল সব জায়গায় ছিল। একজনকে দোষারোপ করে তো লাভ নেই। আমরা দেখছি এবং কীভাবে সমাধান করা যায় চিন্তা করছি।’

২০১৯ সালের আগস্টে দুই বছরের চুক্তিতে বাংলাদেশের প্রধান কোচের দায়িত্ব নেন বিসিবি। সেই হিসেবে তার চুক্তির মেয়াদ শেষ হবে আগামী আগস্টে।

পাঠকের মতামত:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ক্রিকেট এর সর্বশেষ খবর

ক্রিকেট - এর সব খবর



রে