| ঢাকা, সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ১১ কার্তিক ১৪২৭

১০.৪ ওভারেই ১৬৬ রান

২০২০ অক্টোবর ১৭ ১৫:৩৫:৫০
১০.৪ ওভারেই ১৬৬ রান

শুক্রবার রাতে পাকিস্তানের ন্যাশনাল টি-টোয়েন্টি কাপে অবিশ্বাস্য এক ম্যাচ জিতেছে সাউদার্ন পাঞ্জাব। টুর্নামেন্টের শেষ চারের টিকিট পেতে তাদের ১২.৩ ওভারে করতে হতো ১৬২ রান।

এই সমীকরণ মাথায় নিয়ে খেলতে নেমে মাত্র ১০.৪ ওভারেই ১৬৬ রান করে ফেলেছে পাঞ্জাব।বেলুচিস্তান ও সাউদার্ন পাঞ্জাবের মধ্যকার ম্যাচটি ছিলো ন্যাশনাল টি-টোয়েন্টি কাপের প্রথম পর্বের শেষ ম্যাচ। নির্ধারিত ১০ ম্যাচ খেলার পর আগেই শেষ চারের টিকিট নিশ্চিত করে ফেলেছিল নর্থ পাকিস্তান, খাইবার পাখতুন ও সিন্ধ। চতুর্থ টিকিটের জন্য অপেক্ষা ছিলো তিনটি দলের- বেলুচিস্তান, সাউদার্ন পাঞ্জাব ও সেন্ট্রাল পাঞ্জাব।

শেষ ম্যাচটির আগে দশ ম্যাচে ৮ পয়েন্ট ছিলো সেন্ট্রাল পাঞ্জাবের, বেলুচিস্তানের ছিলো ৯ ম্যাচে ৮ ও সাউদার্ন পাঞ্জাবের ছিলো ৯ ম্যাচে ৬ পয়েন্ট। ফলে পরিস্থিতি ছিলো বেলুচিস্তানের পক্ষে। কেননা শেষ ম্যাচে তারা জিতলে সরাসরি চলে যেতো শেষ চারে। এমনকি কম ব্যবধানে হারলেও নেট রানরেটের কল্যাণে পেতো শেষ চারের টিকিট।

কিন্তু শুক্রবার সব সমীকরণ ওলটপালট করেন সাউদার্ন পাঞ্জাবের ব্যাটসম্যানরা। রীতিমতো সাইক্লোন ব্যাটিং করে মাত্র ১০.৪ ওভারেই করে ফেলেন ১৬৬ রান, যা তাদের জয়ের পাশাপাশি এনে দেয় অস্বাভাবিক রানরেট। এর সুবাদে সেন্ট্রাল পাঞ্জাব ও বেলুচিস্তানের বিদায়ঘণ্টা বাজিয়ে চতুর্থ দল হিসেবে সেমিফাইনালে পৌঁছে গেছে সাউদার্ন পাঞ্জাব।

ম্যাচে আগে ব্যাট করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৬১ রান করে বেলুচিস্তান। ওপেনার ইমাম উল হক ৩৭ বলে ৪৮, উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান বিসমিল্লাহ খান ৩৫ বলে ৪১ ও শেষদিকে ঝড় তুলে ২১ বলে ৩৭ রান করেন আকবর-উর-রেহমান। দুই উইকেট নেন মোহাম্মদ ইমরান।

খালি চোখে সাউদার্ন পাঞ্জাবের সামনে লক্ষ্য ছিলো ২০ ওভারে ১৬২ রানের কিন্তু আসলে তাদের এই রান করতে হতো ১২.৩ ওভারের মধ্যে। কেননা এর বেশি ওভার খরচ হয়ে গেলে ম্যাচ জিতলেও সেমিফাইনালের টিকিট পাওয়া হতো না তাদের। এই সমীকরণ মাথায় নিয়েই ব্যাটিংয়ে নামে সাউদার্ন পাঞ্জাব।

পাঠকের মতামত:

ক্রিকেট এর সর্বশেষ খবর

ক্রিকেট - এর সব খবর



রে