| ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৩ ডিসেম্বর ২০২০, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

স্বাস্থ্যমন্ত্রী : চীনা ভ্যাকসিনের ট্রায়াল হবে বাংলাদেশে

২০২০ আগস্ট ২৭ ১৯:৩০:১৭
স্বাস্থ্যমন্ত্রী : চীনা ভ্যাকসিনের ট্রায়াল হবে বাংলাদেশে

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক জানিয়েছেন বাংলাদেশে চীনের তৈরি করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিনের ট্রায়াল হবে। স্বেচ্ছায় অন্য দেশও তাদের ভ্যাকসিন নিয়ে এলে সেটিও দেশে ট্রায়াল হবে বলেও জানান তিনি।

আজ বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে এক অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। তিনি বলেন, ‘চীনের সঙ্গে আজ আলোচনা করেছি। তারা বাংলাদেশে ট্রায়াল করতে চায়। তারা আইসিডিডিআর,বি-কে ভ্যাকসিন দেবে। আমরা বিভিন্ন পর্যায়ে আলোচনা করেছি। প্রধানমন্ত্রীকেও প্রতিটি ভ্যাকসিন সম্পর্কে অবহিত করেছি। তিনি চিন্তাভাবনা করে আমাদের নির্দেশনা বা সিদ্ধান্ত দিয়েছেন।’ চীনা ভ্যাকসিন শুরুতে স্বাস্থ্যকর্মীদের ওপর ট্রায়াল চালানো হবে বলে জানান তিনি।

চীনের সঙ্গে আলোচনা প্রসঙ্গে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আজ ডিটেইল আলোচনা হয়েছে। অফিসিয়ালি তাদের জানিয়ে দিচ্ছি, আপনারা ট্রায়ালের ব্যবস্থা করুন। মন্ত্রণালয় এবং আইসিডিডিআর,বি’র সহযোগিতায় এ ট্রায়াল কার্যক্রম চলবে। চীনের রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে এ বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। তারাও চীনা সরকার এবং কোম্পানির সঙ্গে আলোচনা করে যত তাড়াতাড়ি করা যায় তা করবেন।’

স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরও বলেন, ‘ট্রায়ালের যে খরচ হবে, তারা সেটাও বহন করবেন। এ প্রতিশ্রুতিও তারা দিয়েছেন। আমরা তাদের বলেছি, আমরা ট্রায়াল করার সুযোগ দেবো। কিন্তু ভ্যাকসিন পাওয়ার ক্ষেত্রে যেন বাংলাদেশ অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পায়, তার ওপরে জোর দিয়েছি। এটা তাদের বলা হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘আমরা চাই যেকোনো দেশের ভ্যাকসিন আসুক, তার ট্রায়াল লাগবে। প্রপ্রোজাল হলো-যারা স্বেচ্ছায় আসবে, তাদের ভ্যাকসিনেরই শুধু ট্রায়াল করা হবে।’

করোনা সংক্রমণের হার কমিয়ে আনতে সরকার কাজ করবে জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘সংক্রমণের হার যেন কমে আসে সে বিষয়েও কাজ করা হবে। কারণ ভ্যাকসিন পেতেও সময় লাগবে। ডিসেম্বর-জানুয়ারির আগে কোনো ভ্যাকসিন আসবে না। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ভ্যাকসিনও এপ্রিল-মে-জুনের মধ্যে হয়তো বাংলাদেশসহ অন্যান্য দেশ পেতে পারে। সবাইকে মাস্ক পরতে হবে, মাস্ক পরলে সংক্রমণ অনেক কমে আসবে।’

উল্লেখ্য, করোনা ভ্যাকসিন তৈরির লক্ষ্যে পৃথিবীতে প্রায় ১৪০টি দেশ এবং কোম্পানি চেষ্টা করে যাচ্ছে। পাঁচ থেকে ছয়টি করোনা ভ্যাকসিনের ট্রায়াল তৃতীয় ধাপে রয়েছে। গত জুলাইয়ে বাংলাদেশ ভ্যাকসিনের আবেদন করেছে।

যুক্তরাষ্ট্র, চীন, রাশিয়া ও ভারতে ভ্যাকসিনের কাজ সর্বোচ্চ ধাপে রয়েছে। বাংলাদেশে গ্লোব বায়োটেক নামের একটি কোম্পানি ভ্যাকসিন তৈরির লক্ষ্যে কাজ করছে বলে দাবি করেছে।

পাঠকের মতামত:

স্বাস্থ্য এর সর্বশেষ খবর

স্বাস্থ্য - এর সব খবর



রে