| ঢাকা, শুক্রবার, ৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

এবার ওয়ার্নারের রেকর্ড ভাঙা নিয়ে মুখ খুললেন লারা

২০১৯ ডিসেম্বর ০১ ২৩:৪০:৩১
এবার ওয়ার্নারের রেকর্ড ভাঙা নিয়ে মুখ খুললেন লারা

ডেভিড ওয়ার্নারের ট্রিপল সেঞ্চুরি উদযাপনের পরই টেস্টের রেকর্ড ইনিংসের আসনটি ছেড়ে দেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন ব্রায়ান লারা। কিন্তু টিম পেইনের ইনিংস ঘোষণায় থামতে হয় অস্ট্রেলিয়ান ওপেনারকে। অ্যাডিলেড টেস্টে স্বাগতিক অধিনায়কের এই সিদ্ধান্তে আশ্চর্য হয়েছেন ক্যারিবিয়ান কিংবদন্তি।

অ্যাডিলেডে পাকিস্তানের বিপক্ষে দিবা-রাত্রির টেস্টে ওয়ার্নার যখন একটার পর একটা রেকর্ড ভাঙছিলেন, ঠিক তখন একই শহরে ছিলেন এক টেস্টে সর্বোচ্চ ইনিংসের মালিক লারা। ব্যবসায়িক কাজে ব্যস্ত ছিলেন তিনি। হঠাৎ করে শুনলেন ওয়ার্নারের ট্রিপল সেঞ্চুরির খবর। সঙ্গে সঙ্গে অ্যাডিলেড ওভালের উদ্দেশে রওনা দেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন লারা- নিজের রেকর্ড যার কাছে ভেঙে গেলো, তাকে বরণ করে নিতে! কিন্তু হলো না পেইন ইনিংস ঘোষণা করায়।

সর্বোচ্চ টেস্ট স্কোরের রেকর্ড একবার নয়, দুইবার ভেঙেছিলেন লারা। ১৯৯৪ সালে প্রথমবার, ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ৩৭৫ রান করেন তিনি। তখনকার রেকর্ডধারী ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ লিজেন্ড গ্যারি সোবার্সের অপরাজিত ৩৬৫ রানকে পেছনে ফেলেন। ওই ইনিংসের পর লারাকে অভিনন্দন জানাতে বার্বাডোজের মাঠে নেমে যান সোবার্স। অ্যাডিলেডে একইভাবে ওয়ার্নারকে অভিনন্দন জানানোর ইচ্ছা ছিল বললেন উইন্ডিজ ব্যাটিং গ্রেট।

নিউজ কর্পকে লারা বলেছেন, ‘আমি আশা করেছিলাম তারা আমাকে খুঁজে বের করবে এবং মাঠে নিয়ে যাবে। এর অন্যতম কারণ, আমি আশা করেছিলাম তারা তাকে এই রেকর্ড করার সুযোগ দেবে। তাকে অভিনন্দন জানানো (সোবার্সের মতো) হতো দারুণ ব্যাপার। রেকর্ড হয় ভাঙার জন্য। আর আগ্রাসী খেলোয়াড়রা যদি সেটা ভাঙে, তাহলে আরও চমৎকার লাগে। এটা বিনোদন দেয়। অ্যাডিলেডে থাকায় আমি সুযোগ পেয়েছিলাম, অন্তত মাঠে না গেলেও এই সুযোগে তার সঙ্গে দেখা হতে পারতো।’

অবশ্য অস্ট্রেলিয়ার ইনিংস ঘোষণায় যৌক্তিকতা দেখছেন লারা, ‘এটা ছিল অসাধারণ একটা ইনিংস। আমি বুঝতে পারছি অস্ট্রেলিয়ার কাছে ম্যাচ জয় বড় ব্যাপার এবং আবহাওয়া ছিল গুরুত্বপূর্ণ ফ্যাক্টর। কিন্তু অস্ট্রেলিয়া যদি রেকর্ডটা করতে দিতো তাহলে ভালো লাগতো। চোখের সামনে এটা দেখতে পারলে খুশি হতাম। অন্তত তারা যদি বলতো ‘ডেভিড, তোমাকে ১২ ওভার দেওয়া হলো, দেখো চা বিরতির আগে এটা করতে পারো কিনা’… তাহলে দারুণ হতো।’ অবশ্য সঠিক সময়ে তারা ইনিংস ঘোষণা করেছে। আজ সবকিছু ছিল ধীরগতির। গতকাল রাতে তারা ৬ উইকেট নিয়েছিল।’

কিন্তু লারার মনে অস্বস্তি থাকছেই, ‘স্যার ডন ব্র্যাডম্যানকে পেছনে ফেলার পর আমি ধরে নিয়েছিলাম সে আমার রেকর্ড ভাঙছে। ভালো লাগছিল তখন। তার ইনিংস শেষে মাঠে যাওয়ার জন্য তৈরি হচ্ছিলাম আমি। আমি ধারাভাষ্যকারদের বলতে শুনছিলাম, সে ম্যাথু হেইডেনের ৩৮০ রান ছাড়াতে পারবে কিনা। কিন্তু আমার মনে হচ্ছিল সে যদি একবার ৩৮১ রান করে, তাহলে আমার রেকর্ডও ভাঙতে পারবে।’

তবে ওয়ার্নার ৪০০ রানের রেকর্ড ভাঙার সুযোগ সামনে আরও পাবে বিশ্বাস ওয়েস্ট ইন্ডিজ কিংবদন্তির, ‘আমি এখনও মনে করি ওয়ার্নার তার ক্যারিয়ারে এটা করার আরও সময় পাবে। সে অনেক আগ্রাসী খেলোয়াড়।’ ইন্ডিয়া টুডে, ক্রিকট্র্যাকার

পাঠকের মতামত:

ক্রিকেট এর সর্বশেষ খবর

ক্রিকেট - এর সব খবর



রে