| ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০১৯, ৩১ আষাঢ় ১৪২৬

বাংলাদেশের ম্যাচের সময়ই হতাশ ছিলেন রশিদ খান

২০১৯ জুন ২৫ ১৪:৫৭:১৭
বাংলাদেশের ম্যাচের সময়ই হতাশ ছিলেন রশিদ খান

রশিদ খানের উপর ছিল পাহাড়সমান প্রত্যাশা। র‍্যাংকিংয়ে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার হয়েছিলেন একবার। ব্যাটে-বলে রশিদ এবারের বিশ্বকাপ কাঁপিয়ে দেবেন, এমনটাই আশা করেছিলেন সমর্থকরা।

কিন্তু বাস্তবে দেখা গেল উল্টো চিত্র। ব্যাটিং, বোলিং কিংবা ফিল্ডিং-দলকে জেতানোর মতো কিছুই করতে পারেননি রশিদ খান। তার আসল কাজ বোলিং। এখন পর্যন্ত আফগানিস্তানের হয়ে বিশ্বকাপে ৭টি ম্যাচ খেলে উইকেট পেয়েছেন মাত্র ৪টি।

বাংলাদেশের বিপক্ষে আফগানিস্তানের হারের পেছনে ফিল্ডিংকে দায়ী করছেন আফগানিস্তানের অধিনায়ক গুলবেদিন নাইব। আর দলের খারাপ ফিল্ডিংয়ের প্রভাব নাকি পড়েছিল রশিদ খানের ওপরেও। তাই বোলিংয়ে শতভাগ দিতে পারছিলেন না রশিদ। এ ছাড়া দলের পারফরম্যান্সে হতাশ হয়ে পড়েছিলেন তিনি।

গতকাল সোমবার ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে আফগানিস্তানের অধিনায়ক গুলবেদিন নাইব বলেন, ‘আমরা যদি রশিদ খানের দিকে তাকাই, তিনি অনেক চেষ্টা করেছেন। তিনি তাঁর শতভাগই দিচ্ছিলেন। কিন্তু দলের ফিল্ডিং দেখে হতাশ ছিলেন রশিদ। আর এ জন্য একটা সময় মাঠে অনেক উষ্মা প্রকাশ করেন তিনি।’

আফগানিস্তানের অধিনায়ক আরো বলেন, ‘রশিদ খান এমন একজন ক্রিকেটার, যিনি ফিল্ডিং, বোলিং ও ব্যাটিং সব বিভাগেই ভালো খেলেন।’

‘আবারও বলছি, আমরা অনেক অতিরিক্ত রান দিয়েছি। আর এ জন্য খেলার একপর্যায়ে অনেক হতাশ হয়ে যান রশিদ খান। সে সময় আমি রশিদকে স্বাভাবিক থাকতে বলি এবং বোলিংয়ে মনোযোগ দিতে বলি। আমি মনে করি, দলের ফিল্ডিংয়ের কারণে তিনি তাঁর আত্মবিশ্বাস হারিয়েছিলেন,’ যোগ করেন গুলবেদিন নাইব।

ম্যাচে অতিরিক্ত রান দেওয়ার ফলে বাংলাদেশ বেশি রান করেছে উল্লেখ করে গুলবেদিন বলেন, ‘আমরা বেশ কিছু ক্যাচ মিস করেছি। আর সে সঙ্গে মিস ফিল্ডিংয়ের কারণে অতিরিক্ত ৩০ থেকে ৩৫ রান দিয়েছি। এসব অতিরিক্ত রান না দিলে হয়তো বাংলাদেশের এত রান হতো না।’

পাঠকের মতামত:

ক্রিকেট এর সর্বশেষ খবর

ক্রিকেট - এর সব খবর



রে