| ঢাকা, শনিবার, ২০ জুলাই ২০১৯, ৫ শ্রাবণ ১৪২৬

বিশ্বকাপে বোলাররা সাবধান, মাত্র দুই ম্যাচেই ১৩৯২ রান

২০১৯ মে ১২ ১১:৫৬:৫৯
বিশ্বকাপে বোলাররা সাবধান, মাত্র দুই ম্যাচেই ১৩৯২ রান

বিশ্বকাপের আগে ব্যাটসম্যানদের তরফ থেকে চরম সতর্কবার্তাই পাচ্ছেন বোলাররা। কাল দুটো ওয়ানডের কথাই ধরুন। ডাবলিনে আয়ারল্যান্ড-ওয়েস্ট ইন্ডিজ ম্যাচে দুই দলই তিন শর বেশি রান তুলেছে। ওদিকে সাউদাম্পটনে ইংল্যান্ড-পাকিস্তান ম্যাচে দুই ইনিংসেই দেখা গেছে সাড়ে তিন শর বেশি স্কোর। এ দুই ম্যাচে মোট রান উঠেছে ১৩৯২। এক দিনে (পড়ুন রাতে) দুটি ম্যাচে এটি সর্বোচ্চ রান ওঠার রেকর্ড কি না, তা গবেষণার বিষয়। যেহেতু কন্ডিশন একই তাই বিশ্বকাপে বোলাররা সাবধান!

ডাবলিনের তুলনায় সাউদাম্পটনে বেশি ভুগেছেন বোলাররা। দুই ইনিংস মিলিয়ে মোট রান উঠেছে ৭৩৪! আগে ব্যাট করে ৩ উইকেটে ৩৭৩ রান তুলেছিল ইংল্যান্ড। তাড়া করতে নেমে পাকিস্তান জয়ের সুবাস পেতে পেতে মাত্র ১২ রানে হেরেছে। ১০৬ বলে ১৩৮ রান করেন ওপেনার ফখর জামান। হাতে ৬ উইকেট রেখে শেষ ১০ ওভারে ৯৮ রান দরকার ছিল পাকিস্তানের। তেমন কঠিন কোনো লক্ষ্য ছিল না। কিন্তু ইংলিশ বোলারদের কাছ থেকে শেষ ১০ ওভারে ৮৫ রান তুলতে পেরেছে পাকিস্তান। শেষ পর্যন্ত ৭ উইকেটে ৩৬১ রানে থেমেছে পাকিস্তানের ইনিংস। ওয়ানডেতে তাড়া করতে নেমে এটাই তাদের সর্বোচ্চ সংগ্রহ।

অথচ পাকিস্তান জয়ের পথেই ছিল। মাঝে রান তোলার গতি কিছুটা কমে যাওয়ায় শেষ দিকে একটু চাপে পরেছিল পাকিস্তান। এত বড় লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে পাকিস্তানি তিন ব্যাটসম্যান তুলনামূলক মন্থর ব্যাটিং করেছেন। ৪৪ বলে ৩৫ রান করেন ওপেনার ইমাম-উল-হক, ৫২ বলে ৫১ রান করেন বাবর আজম ও ১৮ বলে ১৪ রান করেন হারিস সোহেল। এ তিন ব্যাটসম্যান মিলে মোট ১১৪ বল খেলে চার মেরেছেন মাত্র চারটি!

জয়ের জন্য শেষ তিন ওভারে ৩২ রান দরকার ছিল পাকিস্তানের। এরপর টানা দুই ওভারে ইমাদ ওয়াসিম ও ফাহিম আশরাফকে হারিয়ে চাপে পরে যায় দলটি। এই দুই ওভারে মাত্র ১৩ রান আসায় শেষ ওভারে দরকার ছিল ১৯। অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ ও হাসান আলী মিলে এই কঠিন লক্ষ্য টপকাতে পারেননি। ৫৭ রানে ২ উইকেট নেন ইংলিশ পেসার ডেভিড উইলি।

পাঠকের মতামত:

ক্রিকেট এর সর্বশেষ খবর

ক্রিকেট - এর সব খবর



রে