| ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২ আশ্বিন ১৪২৬

পদ্মা সেতুর গভীরে যা দেখে ভয়ে কাজ বন্ধ করে দিল প্রকৌশলীরা দেখুন (ভিডিওসহ)

২০১৭ আগস্ট ০১ ১৩:১৬:০০
পদ্মা সেতুর গভীরে যা দেখে ভয়ে কাজ বন্ধ করে দিল প্রকৌশলীরা দেখুন (ভিডিওসহ)

ভারতের আসাম ও অরুণাচলের মধ্যে ঢোলা ও শাদিয়া এলাকার খরস্রোতা ধলা নদী, যা আর ৪ কিলোমিটার ভাটিতে এসে আরও দুইটি নদীর সঙ্গে মিশে হয়েছে ব্রহ্মপুত্র। সেই নদীর ওপর ২ হাজার ৫৬ কোটি ভারতীয় মুদ্রায় ৯ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ সেতু ও ২৮ কিলোমিটার অ্যাপ্রোচ রোড নির্মিত হয়েছে। বাংলাদেশের মুদ্রায় ধরলে এই টাকা ২ হাজার ২০০ কোটি টাকার বেশি হওয়ার কথা নয়।

শুক্রবার ভুপেন হাজারিকা সেতুটির উদ্বোধন করা হয়েছে। আসামে ব্রহ্মপুত্রের শাখা নদী লোহিতের ওপর নির্মিত ৯ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ দুই লেনের ঢোলা-সাদিয়া সেতু (আগের নাম) উদ্বোধন করেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

আসামে চালু হওয়া দক্ষিণ এশিয়ার সবচেয়ে দীর্ঘতম এই সেতুর উদ্বোধনের পর এর খরচ ও নির্মাণ সময় নিয়ে বাংলাদেশের পদ্মা সেতুর তুলনা করে সামাজিক মাধ্যমে নানা কথা উঠেছে। অনেকেই বাংলাদেশের পদ্মাসেতুর খরচ ও সময়কে ভুপেন হাজারিকা সেতুর সঙ্গে তুলনা করতে চাইছেন। ভারতের এই সেতুর নির্মাণ ব্যয়ের কথা জানতে পেরে এদেশের পদ্মা সেতুর সংশ্লিষ্টরা বিষয়টি নিয়ে নানাভাবে জবাব দেওয়ার চেষ্টা করছেন।

বলা হচ্ছে, বিশ্বের শক্তিশালী সেতুর তালিকায় প্রথম অবস্থানে বাংলাদেশের পদ্মাসেতু। দৈর্ঘ্যের দিক থেকে এর চেয়ে বড় সেতু আরও রয়েছে। সম্প্রতি ভারতে উদ্বোধন করা হয়েছে একটি সেতু যা ৯.১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ। পদ্মাসেতু হচ্ছে ৬.১৫ কিলোমিটার। তবে বিশ্বের আর কোনও সেতু তৈরীতে পদ্মার মতো নদীর এতো তলদেশে গিয়ে গাঁথতে হয়নি পাইল, বসাতে হয়নি এত বড় পিলার। আর পদ্মার মতো স্রোতস্বীনী এমন নদীর ওপর সেতু বসেছে মাত্র একটি।

এ বিষয়ে কথা বলেছেন পদ্মাসেতু নির্মাণে নিয়োজিতরা। তারা জানাচ্ছেন শক্তি ও নির্মাণশৈলীর দিক থেকে পদ্মাসেতু কতটা অনন্য। বলছেন এর সঙ্গে অন্য কোনও সেতুর তুলনা চলে না।

পাঠকের মতামত:

জাতীয় এর সর্বশেষ খবর

জাতীয় - এর সব খবর



রে